মেনু নির্বাচন করুন

পূর্ববর্তী মামলার রায়

 

রায় ফরম

   গ্রাম আদালত

৪নং কাপ্তাই ইউনিয়ন পরিষদ

   থানা:   কাপ্তাই, জেলা: রাঙ্গামাটি

     সন: ২০১৪  সাল মোকর্দ্দমার নম্বর:    ০১/২০১৪

          বাদী: মো: আলী সুমন                      বনাম       কহিনুর আক্তার লিপি                    বিবাদী

তারিখ

রায়

স্বাক্ষর

২৭/০৮/১৭ই

অদ্য উক্ত মোর্কদ্দমার শুনানীর জন্য দিন ধার্য্য আছে। আবেদনকারী পক্ষ ও প্রতিপক্ষের  পক্ষগণের  প্রতিনিধিদ্বয় অদ্যকার সালিশী কাউন্সিলে হাজির আছেন। উভয় পক্ষের দাখিলীয় কাগজ পত্র,দলিল দস্তাবেজ পর্যালোচনা করিলাম।ইহা একটি তালাকনামা কার্যকরনার্থে মুসলিম পারিবারিক আইন অধ্যাদেশ ১৯৬১ এর ৭ ধারার নোটিশ যাহা আবেদনকারী (স্বামী) কর্তৃক সালিশী কাউন্সিলে দাখিলিয় একটি তালাকনামা  বিষয়ে পক্ষগণের মধ্যে  পুনঃ মিলনের  জন্য গৃহীত পদক্ষেপের একটি অংশ।

নথিপত্র পর্যালোচনান্তে দেখা যায় যে, আবেদনকারী কিগত ০৯-০৭-১৪ ইং তারিখে অত্র কার্যালয়ে নোটিশ বিহীন তালাকের হলফ নামা প্রেরন করেন। অত্র কার্যালয় উক্ত তালাকের হলফ নামা প্রেরনকালীন সময়ের ঠিকানা উল্লেখ করা হয়েছে যুক্তরাজ্যের ঠিকানা কিন্ত তাহা বিধি মোতাবেক দুতাবাসের মাধ্যমে প্রেরন না করে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীন ডাক যোগে  প্রেরন করা হয়েছে। তাছাড়া  তালাক নামা প্রেরনকারীর স্বাক্ষর ও তারিখ উল্লেখের ক্ষেত্রে ঘষামাজা করা হয়েছে। তাই উক্ত তালাকের  সত্যতা ও গ্রহনযোগ্যতা  বিষয়ে সন্দেহ থাকায় উক্ত তালাক নামার পরবর্তী কার্যক্রম স্হগিত করা হয়। কিন্ত পরবর্তীতে ১২-০৭-১৭ইং তারিখে আবেদনকারীর ভাই মো: আবদুর রহমান বিগত ০৯-০৭-১৪ ইং তারিখে তালাক নামার বিষয়ের অগ্রগতি জানার জন্য পূনঃরায় আবেদন করলে  অত্র কার্যালয় উভয় পক্ষকে নোটিশ প্রদান করেন কিন্ত বাদী বিবাদী  স্বশরীরে হাজির না হয়ে প্রতিনিধির মাধ্যমে হাজির হওয়ায় মুসমিল পারিবারিক আইন অধ্যাদেশ ১৯৬১ এর ৭ ধারা মতে  পূন মিলনের উদ্যেগ গ্রহন সম্ভব না হওয়ায় অত্র আদালত তথা সালিশী বোর্ড  কর্তৃক তালাক নামাটি নথিজাত করা হলো।